Sunday, December 4, 2022

গানের আকাশে ‘মেঘ বিবাগী’ নিয়ে এস আই টুটুল…

কবি ও কথাসাহিত্যিক রহমান ফাহমিদা।

‘মেঘ বিবাগী হলে
দেশ ছেড়ে অন্য দেশে উড়ে যায়,
তবু সে উড়ে যায় আকাশের ছায়ায়।
শুধু এই মন বিবাগী হলে জানিনা জানিনা
জানিনা সে কোথায় হারায়!’…
সাদাফ হাসনাইন মানজুরের কাব্য কথায় দীর্ঘ বিরতির পর এই গানটি গাইলেন এস আই টুটুল। গানটির কম্পোজিশন করেছেন তিতাস কাজি আর সঙ্গীতায়োজনে ছিলেন মীর মাসুম। আমেরিকার ফ্লোরিডা, লন্ডন ও ঢাকার মনোরম লোকেশনে চিত্রায়ন করে ভিডিও পরিচালনা করেছেন জি এম সি সোহান। গানটি প্রকাশ করেছে ধ্রুব মিউজিক ষ্টেশন।
এস আই টুটুল একাধারে একজন গায়ক, সুরকার, গীতিকার ও অভিনয় শিল্পী। শৈশব থেকেই তিনি নিজেকে সঙ্গীতে নিয়োজিত রেখেছেন এবং সঙ্গীতকে পেশা হিসেবে নিয়েছেন। যদিও তিনি পিয়ানোর উপর প্রশিক্ষণ নিয়েছেন তবুও তিনি বিভিন্ন ধরণের বাদ্যযন্ত্র বাজাতে পারেন। তাছাড়া তিনি নিজেই একজন শব্দ প্রকৌশলী। বর্তমানে তিনি ‘ধ্রুবতারা’ ব্যান্ডে লিড গিটারিস্ট ও গায়ক হিসেবে কাজ করেন। পূর্বে এস আই টুটুল যুক্ত ছিলেন দেশের শীর্ষস্থানীয় এবং জনপ্রিয় ব্যান্ড এলআরবির সঙ্গে। মূলত আইয়ুব বাচ্চু তাঁর বড় ভাইয়ের বন্ধু ছিলেন, সেই থেকে পরিচয় ও কিংবদন্তি আইয়ুব বাচ্চুর সাথে থেকে কাজ করা। এলআরবি ছাড়ার পর অনেকদিন এককভাবে গান করেছেন তিনি। তারপর নিজেই প্রতিষ্ঠিত করেন ব্যান্ড ‘ফেস টু ফেস’। এই ব্যান্ড থেকে ‘ধ্রুবতারা’ নামে একটি অ্যালবাম প্রকাশিত হয়। পরবর্তীতে ব্যান্ডের নাম ‘ফেস টু ফেস’ পরিবর্তন করে ‘ধ্রুবতারা’ রাখা হয়। এই ব্যান্ড নিয়েই এস আই টুটুল ২০০৮ সালে প্রকাশ করেন ‘দুঃখ পোকা’ অ্যালবাম। এরপর দীর্ঘ বিরতিতে দেশ বিদেশে স্টেজ শো, চলচ্চিত্র আর অডিও গানের সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন।
এস আই টুটুল বিভিন্ন পুরস্কারে ভূষিত হন, যেমন- দারুচিনি দ্বীপ চলচ্চিত্রে সঙ্গীত পরিচালনার জন্য তিনি ২০০৭ সালে বাংলাদেশ জাতীয় চলচ্চিত্রের সেরা সঙ্গীত পরিচালকের এবং ২০১০ সালে সেরা প্লেব্যাক সঙ্গীত শিল্পীর পুরস্কারে ভূষিত হন, ‘ভালোবাসলেই ঘর বাধা যায়না’ চলচ্চিত্রের জন্য। ২০১৫ সালে বাপ জানে রব ও বায়স্কোপ এই দুটি চলচ্চিত্রে সেরা প্লেব্যাক সঙ্গিত শিল্পী ও সুরকার হিসেবে পুরস্কারে ভূষিত হন। তিনি ভারতের চেন্নাইয়ের চলচ্চিত্রের জন্য সঙ্গীত পরিচালক হিসেবে ২০০৬ সালে আন্তর্জাতিক পুরস্কার লাভ করেন।
এস আই টুটুল দীর্ঘ বিরতির পর ‘মেঘ বিবাগী’ গানটি গেয়ে, গানটি নিয়ে তিনি খুবই আশাবাদী। গীতি কবিতাটি তাঁর খুব ভালো লেগেছে এবং গানের সুরও খুব মিষ্টি একটি সুর। গানটি মন ছুঁয়ে যাওয়ার মত একটি গান। তিনি বিশ্বাস করেন যে, গানটি দর্শক শ্রোতাদের কাছে ভালো লাগবে। সঙ্গীতাঙ্গন -এস আই টুটুলের যে বিশ্বাস! তার সাথে একমত হয়ে আশা করছে গানটি তার নিজস্ব ধারায় সাফল্য বয়ে আনবে এবং দর্শক শ্রোতাদের মনকে মুগ্ধতায় ভরিয়ে তুলবে। অভিনন্দন ও শুভকামনা।

Related Articles

Leave a reply

Please enter your comment!
Please enter your name here

Stay Connected

18,780FansLike
700SubscribersSubscribe
- Advertisement -

Latest Articles