Tuesday, October 4, 2022

গানের পিছনের গল্প – সব ক’টা জানালা খুলে দাও না…

প্রিয় পাঠক,
অভিনন্দন এবং ভালোবাসা নিবেদন করছি আপনাদের প্রতি। সঙ্গীতাঙ্গন এর উদ্দেশ্য সবসময়ই দেশের সকল সুরকার, গীতিকার, শিল্পী এবং সব ধরনের মিউজিসিয়ানদের পাশে থেকে আমাদের দেশীয় সঙ্গীতকে অনেক দুর এগিয়ে দুর নিয়ে যেতে। আমরা চাই সঙ্গীতাঙ্গন এর মাধ্যমে যেকোনো গানের আসল স্রষ্টা সম্পর্কে জানুক। এ জন্য আমরা সব সময় আপনাদের সহযোগীতা কামনা করছি।
কারণ দেশের একাধিক চ্যানেলে এ প্রজন্মের শিল্পীরা গানটির স্রষ্টাদের নাম না বলতে পেরে সংগ্রহ বলে থাকেন। এতে গানের মূল স্রষ্টা ব্যথিত হোন, এমন অনেক অভিযোগ প্রতিনিয়ত বাড়ছে। তাই একটি গানের মূল স্রষ্টাকে পাঠকদের সামনে তুলে ধরতে আমরা বহুদিন ধরেই কাজ করে যাচ্ছি, শুধুমাত্র সঙ্গীতকে ভালোবেসে। এবারের বিষয় ‘একটি গানের পিছনের গল্প’ আমাদের অনেক প্রিয় একজন সঙ্গীতপ্রেমী ভাই জনাব মীর শাহ্‌নেওয়াজ সঙ্গীতাঙ্গন এর মাধ্যমে জানাবেন আমাদের প্রিয় গানের পিছনের গল্প। এবং দেশের বরেণ্য সকল শ্রদ্ধাভাজন শিল্পীগন আপনারাও নিজ দায়িত্বে সঙ্গীতাঙ্গনের মাধ্যমে জানাতে পারেন আপনার নিজ সৃষ্টি অথবা আপনার প্রিয় গানের গল্প। এতে আর এ প্রজন্মের শিল্পীরা ভুল করবেন না গানের স্রষ্টাকে চিনতে।
আসুন সবাই গানের সঠিক ইতিহাস জানতে একতা গড়ি। – সম্পাদক

– তথ্য সংগ্রহে মীর শাহ্‌নেওয়াজ…

গীতিকার : প্রয়াত নজরুল ইসলাম বাবু
সুরকার : আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল
কণ্ঠশিল্পী : সাবিনা ইয়াসমিন

আজ থাকছে দেশাত্মবোধক এই গানটির পিছনের গল্প। স্বাধীনতা উত্তর কালে সৃষ্ট কালজয়ী দেশাত্মবোধক গানের মধ্যে অন্যতম “সব ক’টা জানালা খুলে দাও না”। এই গানের সুরকার আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল জানাচ্ছেন গানটির নেপথ্যের গল্প।

‘আমি মুক্তিযুদ্ধে ২ নম্বর সেক্টরে যুদ্ধ করেছি। তখন আমার বয়স ১৪ বছর। আমরা কমবয়সী কয়েকজনের কাজ ছিল, কুমিল্লা থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পর্যন্ত হানাদাররা কোথায় ঘাঁটি গেড়েছে, তা দেখে আসবো। একবার ধরাও পড়েছিলাম। আমার সঙ্গীরা শহীদ হলেও আমি প্রাণে বেঁচে গিয়েছিলাম। স্বাধীনতার পর সহযোদ্ধা বন্ধুদের হারিয়ে উদভ্রান্তের মতো হয়ে গিয়েছিলাম। তখনই গানকে আকড়ে ধরি আমি। একটানা আট বছর শুধু দেশের গান
করেছি। একদিন মনে হলো, যারা মুক্তিযুদ্ধে মারা গেছেন, তাদের তো আসলে মৃত্যু নেই। তারা আমাদের আশপাশেই কোথাও আছেন। প্রয়াত গীতিকার নজরুল ইসলাম বাবু তখন আমার সাথেই থাকেন। আমার গানগুলো তিনিই লিখতেন। বাবুকে ডেকে বললাম, এই থিমের উপরে একটি গান লিখতে। বাবু লিখলেন, ‘সব ক’টা জানালা খুলে দাওনা’। জানালা শব্দটা শুরুতে ছিল না। সেখানে ছিল ‘দরজা’। ‘দরজা’ শব্দটা আমার কাছে মনে হলো কর্কশ। সেই তুলনায় জানালায় নরম একটা ব্যাপার আছে। অনেকক্ষণ তর্ক-বিতর্কের পর ‘জানালা’ শব্দটি রাখার ব্যাপারেই দুজনে একমত হলাম। গানটি গেয়েছিলেন সাবিনা ইয়াসমিন। আমরা দু’জন তখন বিটিভিতে একসঙ্গে পঁচিশটি দেশের গান করি। বিটিভি তখন যে পারিশ্রমিক দিতো, তাতে যাতায়াতের ভাড়াও উঠতো না। কিন্তু দেশপ্রেমের টানে গান করে গেছি। ‘সব কটা জানালা খুলে দাও না’ অত্যন্ত জনপ্রিয় একটি গান। এই গান প্রমাণ করে, মানুষ দেশের গান শুনতে চায়। তা না হলে এতো বছর ধরে এই গান টিকে থাকতো না।

গানটি করেছিলাম ১৯৮২ সালের দিকে ২৬শে মার্চ বিটিভির বিশেষ অনুষ্ঠানের জন্য। ইপসা রেকর্ডিং স্টুডিওতে গানটি রেকর্ড করেছিলাম। রেকর্ডিস্ট ছিলেন শাফায়াত আলী খান। গিটার বাজিয়েছিল টিপু এবং প্রয়াত শেখ ইশতিয়াক। তবলায় দেবু ভট্টাচার্য। পারকেশনে ইমতিয়াজ। আর ভায়াব্রোফোন বাজিয়েছিল মানাম আহমেদ। আমি কি-বোর্ড আর বেজ গিটার বাজিয়েছিলাম। গানটি টানা আট-নয় বছর বিটিভির খবরের আগে ও পরে বাজানো হয়েছে।” – আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল…

১) “সব ক’টা জানালা খুলে দাও না” / সাবিনা ইয়াসমিন
https://www.youtube.com/watch?v=-oP6M4u8QUU

২) “সব ক’টা জানালা খুলে দাও না” / হারমোনিকা / ডঃ ববিতা বসু
https://www.youtube.com/watch?v=jgVky8gzHyA

Related Articles

Leave a reply

Please enter your comment!
Please enter your name here

Stay Connected

18,780FansLike
700SubscribersSubscribe
- Advertisement -

Latest Articles