Monday, August 8, 2022

বিশ্ব বেতার দিবস ২০২১…

– আফরোজ মিম।

গতকাল ১৩ ফেব্রুয়ারি, শনিবার ‘নতুন বিশ্ব নতুন বেতার’ এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে পালিত হলো বিশ্ব বেতার দিবস-২০২১। এবার নিয়ে বাংলাদেশে দশমবারের মতো দিবসটি নানা আয়োজনে উদযাপিত করা হয়েছে। বিশ্বব্যাপী ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১২ সাল থেকে বেতার দিবস পালন করা শুরু হয়েছিল। জাতিসংঘের সংস্থা ইউনেস্কোর মাধ্যমে দিবসটি পালিত হয়। তবে স্প্যানিশ একাডেমি অব রেডিও এর পেছনে মূল ভূমিকা পালন করে। তাদের অনুরোধে ইউনেস্কো ২০০৮ সালে বিশ্ব বেতার দিবস পালনের ঘোষণা দেয়। প্রথম দিকে ৩০ অক্টোবর বিশ্ব বেতার দিবস হিসেবে ধার্য করা হলেও ২০১১ সালে ইউনেস্কো ১৩ ফেব্রুয়ারিকে বিশ্ব বেতার দিবস হিসেবে পালনের সিদ্ধান্ত নেয়। কারণ ১৯৪৬ সালের এদিনে প্রতিষ্ঠা লাভ করেছিল জাতিসংঘ রেডিও। ২০১২ সালেই সর্বপ্রথম দুনিয়াজুড়ে দিবসটি পালিত হয়। একই বছরে আন্তর্জাতিক রেডিও কমিটিও গঠিত হয়। বিশ্ব রেডিও দিবসের মূল অনুষ্ঠান পালন করা হয় ইউনেস্কোর সদর দপ্তর প্যারিসে।

জাতীয় বেতার ভবন, আগারগাঁও, ঢাকা, বিশ্ব বেতার দিবস ২০২১ উপলক্ষে করোনা মহামারির কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে বিভিন্ন অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করা হয়েছিল। রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দিবসটি উপলক্ষে পৃথক পৃথক বাণী দিয়েছেন। প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এমপি।

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের শুরু হয় ‘বসন্তে রঙিন’ বাংলাদেশ বেতারের যন্ত্র সঙ্গীত পরিবেশনা। বেহালা পরিবেশন করেন সিনিয়র প্রকৌশলী মাসুদ ভূঁইয়া। নজরুল সঙ্গীত পরিবেশন করেন সুজিত মোস্তফা, রবীন্দ্র সংগীত পরিবেশন করেন রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা, বঙ্গবন্ধুর গান ও রবীন্দ্র সংগীত পরিবেশন করেন কামাল আহমেদ এরপর ছিল রেঙ্ক এর পরিবেশনা, নিউজ প্রেজেন্টারদের পরিবেশনা, কণ্ঠশিল্পী আজগর আলীম ও সালমার পরিবেশনা, সর্বশেষে চিরকুট ব্যান্ডের পরিবেশনার মাধ্যমে শেষ হয়। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের গ্রন্থনা ও উপস্থাপনা করেন লালটু হোসাইন ও সহযোগী উপস্থাপনায় ছিলেন সাঈদা জান্নাত বাঁধন।

ঊনবিংশ শতাব্দীর শেষ প্রান্তে এই শক্তিশালী মাধ্যমটি প্রথম ব্যবহার শুরু হয়। আবিস্কারক হিসেবে ইতালির মার্কনিকে (১৮৯৮) ধরা হলেও বাঙালি বিজ্ঞানী জগদীশ চন্দ্র বসু তারও চার বছর আগে (১৮৯৪) বেতারে শব্দ প্রচারে সফল হন। বাংলাদেশ বেতারের যাত্রা শুরু হয় ১৯৩৯ সালের ১৬ ডিসেম্বর। তৎকালীন ব্রিটিশ সরকার ঢাকায় একটি মিডিয়াম ওয়েভ স্টেশন চালু করে। ঢাকার নাজিম উদ্দীন রোডের দোতলা বাড়িতে (বর্তমানে বোরহান উদ্দিন কলেজ ভবন) অল ইন্ডিয়া রেডিওর ঢাকা কেন্দ্র চালু হয়। ১৯৪৭ সালের পর পাকিস্তান ব্রডকাস্টিং ঢাকা নামে এবং পরে ১৯৪৮ সালে রেডিও পাকিস্তান নামে তা পরিচিত হয়। ১৯৭১ সালে স্বাধীনতার পর এর নামকরণ করা হয় বাংলাদেশ বেতার।

দেশে ২২টি বেসরকারি এফএম এবং ৩২টি কমিউনিটি রেডিও চলছে। এ ছাড়া বাংলাদেশ বেতার ১২টি আঞ্চলিক কেন্দ্র এবং ৩৫টি এফএম রেডিও পরিচালনা করছে। কমিউনিটি রেডিওগুলোর মাধ্যমে জনগণের দোরগোড়ায় এই গণমাধ্যম পৌঁছে গেছে। এর মাধ্যমে দরিদ্র এবং প্রান্তিক জনগোষ্ঠী নিজেদের কথা সরাসরি বলার সুযোগ পেয়েছেন।
বাংলাদেশ বেতার দিবসটি উপলক্ষে সবাইকে শুভেচ্ছা জানিয়েছে।

Related Articles

Leave a reply

Please enter your comment!
Please enter your name here

Stay Connected

18,780FansLike
700SubscribersSubscribe
- Advertisement -

Latest Articles