Wednesday, January 26, 2022

এ সপ্তাহের প্রিয় তারকা – বিজন চন্দ্র মিস্ত্রী…

আমাদের দেশের সঙ্গীত তারকাদের অনেক অনেক মজার সব তথ্য বা তাদের পছন্দ, অপছন্দ নিয়ে তারকাদের তুলে ধরা হয় এই বিভাগে। আশাকরি আপনাদের পছন্দের প্রিয় তারকার এই সব তথ্য নিশ্চয়ই আপনাকে আন্দোলিত করবে বলে আমাদের বিশ্বাস। আসুন জেনে নেই এ সপ্তাহের প্রিয় তারকার সম্পর্কে –

নাম : বিজন চন্দ্র মিস্ত্রী।
ডাক নাম : বাবলা।
ভক্তরা যে নামে ডাকে : বিজন।
পিতার নাম : মহেন্দ্র নাথ মিস্ত্রী।
ভাই/বোন : দুই ভাই দুই বোন।
পড়াশুনা : বিমিউজ সরকারি সঙ্গীত মহাবিদ্যালয় এবং এম মিউজ শান্ত মরিয়ম ইউনিভার্সিটি।
পেশা : শিক্ষকতা।
অন্যান্য যোগ্যতা : ছবি আঁকা।
বিয়ে, ছেলেমেয়ে : আমার এক ছেলে বিস্ময় মনন মেয়ে মণিকুন্তলা মম আর আমার সহধর্মিনী মনিকা রানি তরুয়া।
সঙ্গীতে কবে থেকে হাতেখড়ি : সংগীতে হাতেখড়ি ১৯৯৪ সালের বরগুনার যতীন মজুমদারের কাছে।
সঙ্গীতে আসার পেছনে কার অনুপ্রেরণা দোলা দেয় : মা-বাবা বড় বৌদি।

গান করি : নজরুল, উচ্চাঙ্গ সংগীত, আধুনিক গান।
বাজাই : তবলা, হারমোনিয়াম, তানপুরা, সুর মন্ডল।
জন্ম তারিখ : ৮ জুন।
জন্ম স্হান : বরগুনা।
রাশি : মিথুন।
প্রথম স্টেজ পারফর্ম : বরগুনায় বাবুল সাহার হাতধরে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের অনুষ্ঠানের প্রথম গান করা।
প্রথম এ্যালবাম : ঠাই যেন পাই চরণে ভক্তিগীতি অ্যালবাম ২০০৪ সালে।
এই পর্যন্ত এ্যালবামের সংখ্যা : দুটি নজরুল সংগীত দুটি একক ভক্তিগীতি এবং অনেকগুলো মিক্সড অ্যালবাম।
সর্ব প্রথম মিডিয়ার সামনে : ১৯৯৯সালে প্রথম রেডিওতে গান করা।
নিজের প্রিয় গান : আমার আপনার চেয়ে আপন যে জন নজরুল সংগীত।
কোন পুরষ্কার : ২০১২ সালে আর টিভি ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ড প্রমিজিং ট্যালেন্ট পুরস্কার লাভ।
প্রিয় ব্যাক্তি : মা বাবা।
প্রিয় ব্যাক্তিত্ত্ব : বাবা ও আমাদের প্রাণের কবি কাজী নজরুল ইসলাম।

প্রিয় শখ : ভালো গান করাও ভালো ছবি আঁকা।
পছন্দের খাওয়া : পেঁপে ভর্তা, সরিষা ইলিশ।
প্রিয় পোশাক : পাঞ্জাবি পাজামা।
প্রিয় পারফিউম : হেভোক।
প্রিয় গাড়ি : বিএমডব্লিউ।
প্রিয় খেলা : ক্রিকেট।
প্রিয় খেলোয়াড় : শচীন টেন্ডুলকার।
প্রিয় বই : নজরুলের মৃত্যু ক্ষুধা। প্রথম আলো সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়।
প্রিয় পত্রিকা : প্রথম আলো, ডেইলি স্টার।
প্রিয় ম্যাগাজিন : সঙ্গীতাঙ্গন, বিচিত্রা।
প্রিয় চ্যানেল : মাছরাঙা,দেশ টিভি।
চ্যানেলের প্রিয় অনুষ্ঠান : সকালের গানের অনুষ্ঠান।
প্রিয় শিল্পী : সুমন চৌধুরী, খায়রুল আনাম শাকিল।
প্রিয় শিল্পী : ওস্তাদ রশীদ খান মান্না দে।
প্রিয় ব্যান্ড : সোলস।
প্রিয় মিউজিশিয়ান : ওস্তাদ জাকির হোসেন, ওস্তাদ আলী আকবর খান, পন্ডিত রবিশঙ্কর।
প্রিয় অভিনেতা : রাজ্জাক ও উত্তম কুমার।
প্রিয় অভিনেত্রী : শাবানা, সুচিত্রা সেন,সাবানা আজমী।
প্রিয় গান : নজরুল সংগীত।
প্রিয় রং : ফিরোজা।
প্রিয় ফুল : বেলি ফুল।
প্রিয় বেড়ানোর জায়গা : সেন্ট মার্টিন।
স্বপ্ন স্হান : ইন্দোনেশিয়ার বালি।
আমার লক্ষ্য : কিছু ভালো গান করে যাওয়া ও কিছু ভালো ছবি আঁকা।
অপূর্ণ ইচ্ছা : দেশের বাইরে গান করতে যাওয়া।
নতুনদের জন্য কোন উপদেশ : শুদ্ধভাবে গান শেখা ও মানুষের উপকার ভুলে না যাওয়া।
আমার দুঃখ : সংগ্রামী জীবনে ঠিকভাবে পড়াশোনা করতে না পারা।
ভয় পাই : নীতিভ্রষ্টদের দেখলে।
এড়িয়ে চলি : অন্যের সমালোচনা।
আনন্দের স্মৃতি : মাছধরা ও মাঠে গরু চরানো।
বেদনার স্মৃতি : বাবা মায়ের মৃত্যু।
জীবনটা যেমন : সংগ্রামী।
বিশেষ কৃতজ্ঞতা : আমার বৌদি বাবা-মা, আমার গুরুরা, বিজয় দা, জবাদি, বাদল মামা, অঞ্জলি বিশ্বাস, মনিন্দ্র বিশ্বাস। ডাক্তার দিলীপ কুমার রায়।

গর্ব হয় : আমার গুরু যতীন মজুমদার, পন্ডিত গোপীমোহন কর্মকার, ডক্টর মিন্টু কৃষ্ণ পাল, সুমন চৌধুরী, শ্রী অসিত দে, খায়রুল আনাম শাকিল, শাহীন সামাদ, সোহরাব হোসেন সুধীন দাশ এমন বিখ্যাত গুরুদের সান্নিধ্য লাভ করা।
ভবিষ্যতে হবো : মানুষের মতো মানুষ হতে চাই।
আবার জন্ম নিলে যা হতে চাইবো : মানুষ।
এখন যাদের সম্ভাবনা বলে মনে হয় : সুচ্মিতা দেবনাথ সুচী, মোহিত, সুপ্রিয়া,সোনিয়া, অভিজিৎ, টিংকু প্রশান্ত, সুপান্থ।
ভক্তরা আমার সাথে যে ভাবে যোগাযোগ করবে : ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ, ম্যাসেঞ্জার।
প্রথমদিন স্টুডিওতে গান করার অনুভূতি : অসাধারণ অনুভূতি যা এক কথায় বলে বোঝানো সম্ভব না।
প্রিয় গানের দু’টি লাইন যা আপনাকে প্রেরনা বা দোলা দেয় : আমার আপনার চেয়ে আপন যে জন খুঁজি তারে আমি আপনায় ।
সবচেয়ে ভালবাসি : অন্যের উপকার করতে।
সবচেয়ে ঘৃনা করি : মিথ্যাবাদীকে।
সবচেয়ে বড় বন্ধু : যারা আমার সংগ্রামী জীবনে সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছেন, যাদের সহযোগিতায় আজ আমি এই পর্যন্ত।
সবচেয়ে বড় শত্রু : যারা বিভিন্ন সময় সুবিধা গ্রহণ করে এখন সমালোচনা করে।
আমার কাছে ভালবাসা : মনের ভেতর থেকে কাউকে কাছে টেনে নেয়া।
আমার কাছে সৌন্দর্য : মনের সৌন্দর্য।
দেশে আপনি কোন্ স্থান পছন্দ করেন কনসার্টের জন্য: চাঁদপুর, ঢাকা।
যেসব দেশে কনসার্ট করেছেন এবং ঘুড়েছেন : দিল্লি, নেপাল, কোলকাতা, ত্রিপুরা।

Related Articles

Leave a reply

Please enter your comment!
Please enter your name here

Stay Connected

18,780FansLike
700SubscribersSubscribe
- Advertisement -

Latest Articles