Sunday, December 4, 2022

লাকী আখন্দের জন্মদিনে…

– সুব্রত মণ্ডল সৃজন।

সময়টা ছিল ১৮ জুন ১৯৫৬ খ্রিস্টাব্দ। তৎকালীন পূর্বপাকিস্তানে (বাংলার ভূখণ্ডে) ঢাকার পাতলাখান লেন-এ জন্মগ্রহণ করেন বাংলাদেশের প্রখ্যাত সুরকার, সঙ্গীত পরিচালক ও কণ্ঠশিল্পী লাকী আখন্দ।

আজ এই মহান মানুষের জন্মদিনে সঙ্গীতাঙ্গন এর পক্ষ থেকে তার ছোটবেলার বন্ধু শিল্পী লীনু বিল্লাহ’র কাছ থেকে কিছু অজানা কথাসহ শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করছি।

শিল্পী লীনু বিল্লাহ’র সাথে কথা হলে তিনি জানান, লাকী আখন্দ, ও আমার ছোটবেলার খুব ভালো বন্ধু। খুব ছোটবেলা থেকেই গানের প্রতি তার আলাদা রকম টান ছিল। তখন থেকেই রেডিও-টেলিভিশনে সংগীত বিষয়ক অনুষ্ঠানে শিশুশিল্পী হিসেবে অংশগ্রহণ করতো এবং পরে অল্পবয়সেই খুব সুন্দর একজন সুরকার ও সঙ্গীত পরিচালক হিসেবে নিজের নাম প্রতিষ্ঠিত করতে সক্ষম হয়।

তিনি আরো বলেন যে, একসাথেই আমরা গান-বাজনার সাথে বড় হয়েছি ‘ও’ ভীষণ ‘ট্যালেন্টেড’ ছিল! ওর মৃত্যুর আগে কিছু গান ছিল একদিন আমি ওকে বললাম, দোস্ত আমি এই গানগুলো করতে চাই। বলল, ঠিক আছে তুই করবি। আর আমার কাছে আরো ভালো ভালো গান আছে তুই আমার বাসায় চলে আয়, আমি তোকে দিয়ে আরো কয়েকটা গান করাবো। ও আবার পুরান ঢাকায় থাকতো তো। এই যাই যাই করে করে তখন আর যাওয়া হলো না।

তারপর ‘ও’ যখন অসুস্থ হয়ে গেল মৃত্যুর তিন মাস আগে আমি বললাম, দোস্ত আমি তোর সুরে এই গান দুইটা করতে চাই –
১. বড় ক্লান্তি নিয়ে ঘরে আজ ফিরে এলাম…
২. যতদিন বেঁচে আছি তোমাদের যেন আমি শুনিয়ে যেতে পারি গান…
(গানের কথা লিখেছেন গীতিকার কাওসার আহমেদ চৌধুরী)
‘ও’ খুব আবেগে আপ্লুত হয়ে গেলো আর বলল, ‘ঠিক আছে তুই কর। করার পরে আমাকে শুনাইস।

মৃত্যুর ঠিক ১৫ দিন আগে ওই দুইটা গান করি। গান দুটি করে আমি, তমাল (জেমস-এর সাথে কীবোর্ড বাজায়) আর টিংকু তিনজন মিলে ওর বাসায় গান শোনাতে যাই, মৃত্যুর এক সপ্তাহ আগে। গান দুটি শুনে ও অনেক খুশি হলো! অনেক পছন্দ করলো….. তারপর ও’ তো চলে গেলো না ফেরার দেশে…!

সর্বোপরি বলব, লাকী’র গানের সুরে আছে এক উদাস ভাব! তা এক অন্যরকম সৃষ্টি! এমন সাংঘাতিক উদাস ভাব অন্য কারো সুরে পাওয়া যায় না বললেই চলে। ওর সুর আমাকে খুব আকৃষ্ট করে! আর আমিও অনেক স্মৃতিকাতর হয়েশুনি ওর গান! ওর গানের সুরে যে ‘মেলোডি’ অন্যান্যদের থেকে একেবারেই অন্যরকম।

আজ ওর জন্মদিনে ও’র প্রতি আমার শুভেচ্ছা জানাই। আর একটা কথাই বলবো যে, ‘লাকী তুই যেখানেই থাকিস খুব ভালো থাকবি, আমরা এটাই প্রার্থনা করি স্রষ্টার কাছে’।

সঙ্গীতাঙ্গন এর সাথে থাকার জন্য লাকী আখন্দের বন্ধু শিল্পী লীনু বিল্লাহ’কে জানাই আন্তরিক শুভেচ্ছা।

‘সঙ্গীতাঙ্গন’ পরিবারের পক্ষ থেকে লাকী আখন্দের জন্মদিনের তাঁর প্রতি ভালোবাসা ও শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করছি।

‘যেখানেই থাকো ভালো থাকো
শিল্পী লাকী আখন্দ।
তোমারি গান শুনে আমরা
অন্তরে পাই আনন্দ।’

Related Articles

Leave a reply

Please enter your comment!
Please enter your name here

Stay Connected

18,780FansLike
700SubscribersSubscribe
- Advertisement -

Latest Articles