সংসদে ধর্মের পক্ষে প্রধান মন্ত্রীর বক্তব্য…

মোশারফ হোসেন মুন্না।

আমরা যে, যে ধর্মের অনুসারী হইনা কেন, আমরা যে, যে পথেই চলিনা কেন! সব কিছুর উপর আসল সত্য হলো, আমরা একই সৃষ্টিকর্তার সৃষ্টি জীব। আমরা সবাই কোন না কোন ভাবে ভুল করে ফেলি। এমনও হতে দেখা যায় যে এক ধর্মের লোক অন্যের ধর্মকে ছোট করে, ধিক্কার দেয়। কিন্তু এমন কোন ধর্মে এমন কোন মানুষ খুঁজে পাওয়া যায়নি যেখানে সয়ং সৃষ্টিকর্তাকে অস্বিকার করেন বা সৃষ্টিকর্তাকে বিভিন্ন ভাবে গালিগালাজ করেন। তবে ইদানিং কালে মুসলিম ধর্মে আঘাত করে আল্লাহকে নিয়ে কটুক্তিমূলক কথা বা অপমান করা শুরু হয়েছে। যা পৃথিবীর কোন মানুষের কাম্য নয়। কথায় আছে যে ঘুড়ি আকাশে উঠে গেলে নাকি সে মনে করে আমি সবার উপরে আমাকে আর পায়কে ? কিন্তু ঘুড়িটা আনন্দের বেগে ভুলে যায় যে তাকে আকাশে কেউ একজন উঠিয়েছে। তেমনি তারাও ভুলে যায় যে এই সুন্দর পৃথিবীতে আসতে তার কত জনের সহযোগীতা প্রয়োজন হয়েছে। পৃথিবীতে এসে তাদের মুখে আসে আল্লাহর চেয়ে বড় তাদের গুরুজ্বী। আসলে যারা গানকে ভালোবেসে গান করেন। তাদের কি ভুলে গেলে চলবে যে আল্লাহ একজন আছেন ? পৃথিবীতে হাজারো লাখো শিল্পী আছেন। গান করেন বা করছেন কিন্তু কিছু কিছু গানের শিল্পীরা আছেন যারা শিল্পী হবার পর নিজেকে খুব বড় কিছু ভেবে বসেন। তেমনি একজন শিল্পী রিতা দেওয়ান। আমাতের সৃষ্টিকর্তাকে নিয়ে ৩০ মিনিটের মতো অকথ্যকথন ও গালাগালি করেন। এমন সব গালি ও অনৈতিক, অশ্লিল কথা আল্লাহকে বলেছেন যা মুখে আনাও পাপ। তিনি ভুলে গিয়েছিলেন যে এটা ৯০% মোসলমানের দেশ। আল্লাহকে নিয়ে এমন কথা কেউ মেনে নিবে না। বাংলাদেশের কর্ণধার। বাংলার জননী, জননেত্রী শেখ হাসিনা তিনিও প্রশ্রয় দেননি এই বিষয়টাকে। হাসানুল হক ইনুর প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা সংসদে দ্বাড়িয়ে স্পষ্ট ভাষায় বলেছেন, যে বা যারা বাউল গান বা পালা গান যে টাই করুকনা কেন, তাতে তো কেউ কিছু বলছেনা। কেউ বাধা দিচ্ছেনা। বয়াতিদের গান করা বন্ধ করে দিচ্ছেনা। গানের তো কোন দোষ নেই। কিন্তু যারা গান করেন তারা যদি অপরাধ করে বসেন সে ক্ষেত্রে তাদেরকে অপরাধের শাস্তি পেতেই হবে। কারণ আইন আইনের গতিতে চলবে। সেখানে কিছু করার নেই। সংসদে শেখ হাসিনার মুখে এমন কথা শুনে সংসদসহ বাংলাদেশের মুসলমান খুবই আনন্দিত এবং গর্ভিত এই ভেবে যে প্রধানমন্ত্রী তার জায়গায় দাড়িয়ে যে কথাটা বলার দরকার ঠিক সেটাই বলেছেন।
রাসেল মিয়া নামে এক লোক এই খোদাদ্রহী শিল্পী রিতা দেওয়ানের বিরুদ্ধে মামলা করেন যার কারণে তাকে গ্রেফতার করেন পুলিশ। এর আগে মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামীন অশ্লীল ও কুরুচিপূর্ণ ভাষায় গালি দেওয়া রিতা দেওয়ান তার ভুলের জন্য করজোড়ে ক্ষমা চেয়েছেন। ধর্মপ্রাণ মুসলামানদের কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়ে সামাজিক মাধ্যম ইউটিউবে এক ভিডিও সাক্ষাতকার দিয়েছেন রিতা দেওয়ান। এসময় মায়ের সাথে হাতজোড় করে ক্ষমা চেয়েছে রিতা দেওয়ানের দুই মেয়ে আফরিন দেওয়ান ও নাজমিন দেওয়ান।
গতকাল শনিবার ১ ফেব্রুয়ারি ‘গান রুপালি এইচডি’ নামক একটি ইউটিউব চ্যানেলে রিতা দেওয়ানের ক্ষমা চাওয়ার ভিডিও আপলোড করা হয়। ভিডিওতে দেখা যায় উপস্থাপকের সঙ্গে রিতা দেওয়ান তার দুই মেয়েকে নিয়ে হাজির হয়েছেন। উপস্থাপনের কুশল বিনিময় প্রশ্নের জবাবে রিতা দেওয়ান তেমন ভালো নেই উল্লেখ্য করেন। কেন ভালো নেই জানতে চাইলে রিতা বলেন, আমার একটা গান ইউটিউব চ্যানেলে ভাইরাল হয়ে সমস্যায় পড়ে গেছি। আমার ভুলটি ছিলো, আসলেতো আল্লাহর সাথে কখনো পাল্লা চলে না। তার দয়ায় তার রহমতে আমি বাচ্চা ছেলে মেয়ে নিয়ে গান করে বেঁচে আছি। সেদিন যে পালাটা ছিলো তাতে আমার প্রতিপক্ষ ছিলো পরম। অভিনয় করতে গিয়ে তাকে আক্রমণ করতে গিয়ে আমার কথা সৃষ্টিকর্তার দিকে চলে গেছে। এটা আমার ভুলে হয়ে গেছে।
রিতা বলেন, পালা করতে গেলে সারারাত-সারাদিনব্যাপী কথা বলতে হয়। একটা কথা এদিক-সেদিক হয়ে যায়। ভুল হয়ে যায়। তবে এ কথাটা আমার ভুল হয়ে গেছে। মুসলিম ভাই বোনদের কাছে আমি বলবো আমার ভুল হয়ে গেছে। আমাকে ক্ষমাকে করে দিবেন। আমি যেন আর কোনোদিনও ভুল না করি। এবং আমি যেন ধর্মের বিরুদ্ধে বলি নাই ভুলে হয়ে গেছে তারপরও যেন আর না বলি।
এসময় রিতা দেওয়ান দুই হাত জোড়ো করে দর্শকদের উদ্দেশ্যে ক্ষমা চান। রিতা দেওয়ানের সঙ্গে তার দুই মেয়েও এসময় মায়ের সাথে করজোড়ে ক্ষমা প্রার্থনা করে।
রিতা দেওয়ান বলেন, মানুষ হয়ে পৃথিবীতে এসেছি। মানুষ হয়ে থাকতে চাই। আল্লাহকে নিয়ে কটু কথা বলি নাই, মালিক যেন আমাকে ভুল না করায়। এটা আমার ভুল হয়ে গেছে। মানুষের ভুল হয়, শয়তানের ভুল নেই। শয়তানই আমাকে দিয়ে ভুল করিয়েছে। এই সময় ছোট মেয়ে আফরিন দেওয়ান বলেন, আমি বলতে চাই- আমার মায়ের হয়ে আমি আপনাদের কাছে ক্ষমা চাই। আর আমি প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি আমার মার আর এরকম ভুল করবেন না। বড় মেয়ে নাজমিন দেওয়ান বলেন, আসলে আমার মা বাউল গান করে। গান করতে গিয়ে অনেক শিল্পীরা অনেক ধরণের ভুল হয়। আমার মার ভুল হয়ে গেছে। আমার মায়ের হয়ে আমরা দুই বোন ক্ষমা চাচ্ছি। আমরা প্রতিশ্রিুতি দিচ্ছি, আমার মা এরকম ভুল করবে না। আপনারা আমার মায়ের জন্য না, আমাদের মুখের দিকে তাকিয়ে আমার মাকে ক্ষমা করে দিবেন।
প্রসঙ্গ, সম্প্রতি একটি পালা গানের আসরে প্রতিপক্ষকে আক্রমণ করতে গিয়ে রিতা দেওয়ান মহান আল্লাহ তাআলাকে নিয়ে চরম ধৃষ্টতা, অশ্লীল ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করেন। আল্লাহ তাআলাকে শয়তান, মুনাফিক, দুইমুখী বলেও গালি দেন। পরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভিডিও ভাইরাল হলে ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়। রিতা দেওয়ানের শাস্তিও দাবি করেন অনেকে। তাই বর্তমানে সংসদেও চলছে এই নিয়ে আলোচনা সমালোচনা।
সম্প্রতি শরিয়ত বয়াতি নামক এক বাউল শিল্পী পালা আসরে ইসলামে গান বাজনা জায়েজ বলে বক্তব্য দেন। বক্তব্যে তিনি আল্লাহ-রাসূল (সা.) ও ইসলাম নিয়ে নানান আপত্তিকর কথা বলেন। ধর্মবিরোধী বক্তব্যের প্রতিবাদে সরব হয় স্থানীয় মুসুল্লিরা। ধর্মীয় অনুভুতিতে আঘাতের অভিযোগে তার বিরুদ্ধে ডিজিটাল আইনে মামলাও হয়। পরে বিক্ষোভের মুখে তাকে গ্রেফতার করে টাঙ্গাইল পুলিশ। বর্তমানে তিনি জেল হাজতে আছেন।
সবার সুস্থতা কামনা করি। ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন।

Related Articles

Leave a reply

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisement -

Latest Articles