test
Saturday, June 15, 2024

সর্বপ্রথম সঙ্গীত বিষয়ক পত্রিকার স্বীকৃতি পেল ‘সঙ্গীতাঙ্গন’…

সঙ্গীত মানুষের জীবনে এক অবিচ্ছেদ্য অংশ। যা জীবনের সাথে জড়িয়ে আছে সব সময়, সব জায়গায়। সঙ্গীত মানুষের কথা বলে, জীবনের কথা বলে। দুঃখের কান্না মুছে দিয়ে সুখের হাসি ফুটায়। স্বপ্ন দেখায় দুঃখ ভুলে সুখের নতুন সম্ভাবনার। সেই সঙ্গীতকে ভালোবেসে তার আবেগে বিমোহিত হয়ে কেটে গেলো সঙ্গীতাঙ্গন পত্রিকার ২৬ বছর। সঙ্গীতের পিছনের যারা কাজ করেন শ্রম দেন, তাদের শ্রমকে মূল্য দিতে, মানুষের কাছে তাদের কথা পৌছে দিতে সঙ্গীতাঙ্গন পত্রিকার নিরলস সাধনা করে যাচ্ছেন দীর্ঘ ২৬ বছর ধরে। কোন পারিশ্রমিকের বিনিময়ে না শুধু মাত্র সঙ্গীতকে ভালোবেসে, সঙ্গীতের প্রচার ও প্রসারের লক্ষে। বাংলা সঙ্গীতকে ছড়িয়ে দিতে সঙ্গীতাঙ্গন এর প্রচেষ্ঠা নিরন্তর। দীর্ঘ কাজের সফলতা ও বাংলাদেশের সর্বপ্রথম সঙ্গীত বিষয়ক পত্রিকা ‘সঙ্গীতাঙ্গন’ তার স্বিকৃতি পেয়েছে গত ১৬ই অক্টোবর ২০১৮ সালে। গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় সংস্কৃতি মন্ত্রী জনাব আসাদুজ্জামান নুর এই স্বিকৃতি প্রদান করেন। তিনি বলেন যে বাংলাদেশে একমাত্র সঙ্গীত বিষয়ক সর্বপ্রথম পত্রিকা সঙ্গীতাঙ্গন। তার পথ চলা সময়কাল ২৬ বছর। সঙ্গীতাঙ্গন পত্রিকার প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক জনাব আহসানুল হক মন্ত্রী মহাদয়ের কাছে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে সঙ্গীতাঙ্গনের লেখা বিগত দিনের তথ্য অনুলিপি পেশ করেন। অনুলিপির তথ্য জাচাই করে জনাব আসাদুজ্জামান নুর সঙ্গীতাঙ্গনকে দেশের সর্বপ্রথম সঙ্গীত বিষয়ক পত্রিকার স্বিকৃতি প্রদান করেন। এসময় জনাব আহসানুল হক সাহেবের নিকট স্বিকৃতি কপি বুজিয়ে দেন মন্ত্রী মহদোয়। এবং বলেন যে সঙ্গীতের জন্য সঙ্গীতাঙ্গন বিনা পারিশ্রমিকে যে শ্রম দিয়ে যাচ্ছে আমি তাদের মহত্বকে অভিনন্দন জানাই। সঙ্গীতাঙ্গন সঙ্গীতের ভালোবাসায় বেঁচে থাকুক হাজার বছর সঙ্গীত প্রেমীদের হৃদয়ে। আমি এর সাফল্য কামনা করি।

সঙ্গীতাঙ্গন সঙ্গীতের বিভিন্ন শাখায় তাদের পরিশ্রম দিয়ে যাচ্ছেন। নীচে তাদের কাজের কিছু বিবরণ দেওয়া হলো।
১. অডিওঃ সঙ্গীত তার গতানুগতিক কাজের ধারা অব্যাহত রেখেছে বিভিন্ন গাানের মাধ্যেমে। সেই নতুন গান গুলি শ্রোতাদের কাছে পৌছে দিতে সঙ্গীতাঙ্গন কাজ করে যাচ্ছেন সব সময়।
২. উৎসবঃ বাংলাদেশ উৎসব প্লাবনের দেশ। সব ধরনের উৎসব নিয়ে গান করা হয়। সেই গানকে উৎসব সহ পৌছে দেই মানুষের অন্তরে।
৩. এ সপ্তাহের প্রিয় তারকাঃ গানের জগৎ এ শিল্পীদের লাখো কোটি ভক্ত থাকে। যারা প্রতিনিয়ত তাদের পছন্দের তারকাদের অজানা কথা জানতে চায়। জানার আগ্রহী শ্রোতাদের কাছে, তারকাদের নিয়ে প্রতি সপ্তাহে একজন করে প্রিয় তারকা নিয়ে রিভিউ করা হয় এই বিভাগে। এতে শিল্পী জীবনের নানা কথা শ্রোতারা জানতে পারে।
৪. ওয়েস্টার্ন মিউজিকঃ ওয়েস্টার্ন মিউজিকের আপডেট নিউজ সব সময় সঙ্গীতাঙ্গন দিয়ে থাকে।
৫. কনসার্টঃ দেশের বাইরে হোক বা দেশেই হোক সব ধরণের কনসার্টের তথ্য সঙ্গীতাঙ্গন পৌছে দেন সব সময়।
৬. গীতবাদ্যকর বা যন্ত্রসঙ্গীত শিল্পীঃ আমাদের দেশে শুধু শিল্পী, গীতিকার ও সুরকারকে প্রাধান্য দেয়া হয় বেশি। কিন্তু যাদের বাদ্যের বাজনায় গানে আসে প্রাণ, তাদের কথা কেউ জানেনা। তারা সব সময় আড়ালেই থেকে জান।
সঙ্গীতাঙ্গন তাদেরকে মূল্য দিয়ে তাদের কথা, তাদের কর্ম ও শ্রম তুলে ধরেন সর্বসাধারণ এর কাছে। যা সঙ্গীতাঙ্গন ছাড়া কেউ করেনা।
৭. গীতিকবিঃ সুন্দর সুস্থ প্রাণবন্ত কথায় গীতিকার লেখেন গান। যেই কথাগুলো সুরের তালে ভরিয়ে দেন মানুষের প্রাণ। তাদেরকে সঙ্গীতাঙ্গন তুলে ধরেন জাতির সামনে।
৮. ছোট গল্পঃ গান কিংবা শিল্পী জীবনে মজার তথ্য নিয়ে মনরুচিকর গল্প বানিয়ে বিনোদনের আমেজে রাঙ্গিয়ে দিতে চেষ্ঠা করেন।
৯. টিভি শোঃ দেশের টিভি চ্যানেলগুলোতে মিউজিক নিয়ে যে সব অনুষ্ঠান করা হয়, সঙ্গীতাঙ্গন তা মানুষের কাছে পৌছে দেবার চেষ্ঠা করেন।
১০.দেশের বাইরে দেশীয় সংস্কৃতিঃ দেশের বাইরে দেশীয় সংস্কৃতিকে মর্যাদার আসনে বসাতে বিভিন্ন সময় দেশের শিল্পীরা বাইরের দেশে শো করতে যান। সঙ্গীতাঙ্গন তাদের খবর আগেই মানুষের কাছে পৌছে দেবার ব্যবস্থা করেন।
১১. নতুন এ্যালবামঃ এ বিভাগে নতুন গানের এ্যালবাম নিয়ে তারা কাজ করেন।
১২. নৃত্যঃ গানের সাথে নৃত্য পরিবেশন নিয়েও কাজ করেন তারা।
১৩. পরিচিতিঃ সঙ্গীত জগৎ এ সব সময় মেধাবী নতুন মুখ এসে থাকেন। তাদের কাজের সফলতা নিয়ে সঙ্গীতাঙ্গন পরিচিত করিয়ে দেন মিউজিক জগৎ এর সাথে।
১৪. বর্ষবরণে সঙ্গীতাঙ্গনঃ নতুন বছরকে আরো আনন্দিত ও রুমাঞ্চিত করতে নতুন গানের ঢাক বাজে প্রতিটি স্টুডিওতে। সেই বর্ষবরণের আনন্দ ছড়িয়ে দেন সঙ্গীতাঙ্গন।
১৫.বাংলা বাঘের গানঃ ক্রিকেট বাংলাদেশের সম্ভাবনাময় একটি খেলা। তাদেরকে উৎসাহ ও উদ্ধিপনা দিতে সব সময় নতুন গানের কাজ হয়ে থাকে আর তার প্রচারণায় কাজ করেন সঙ্গীতাঙ্গন।
১৬. বাদ্যযন্ত্র পরিচিতিঃ দেশ এখন অনেক এগিয়ে আছেন। সঙ্গীতের জগৎ এ এখন ইন্সট্রোমেন্ট গুলো সবই আধুনিক। কিন্তু একটা সময় গানে বাজতে শোনা যেত, ঢোল, তবলা, বেহেলা, হারমোনিয়াম, সেতার, একতারা, বাঁশি, সহ আরো অনেক বাদ্যে যন্ত্র। যা এখন বহুলাংশে সেটা শেষ হয়ে নতুন প্রজন্ম নতুন যন্ত্রের মাধ্যেমে গান করেন। কিন্তু সেই সোনালী অতিত ভুলে যাতে না যায়, তার জন্য পুরোনো যন্ত্রগুলোর পরিচিতি নিয়ে আমরা নিউজ করি। যন্ত্রগুলোর সব অজানা তথ্য দিয়ে থাকি।
১৭. মৃত্যুবার্ষিকীঃ যারা সঙ্গীত ভূবনকে বিদায় জানিয়ে চলে যান না ফেরার দেশে সবাই ভুলে গেলেও সঙ্গীতাঙ্গন তাদেরকে মনে রাখেন। তাদেরকে তাদের জন্ম-মৃত্যু দিবসে স্মরণ করেন। তাদের কর্ম তুলে ধরেন মানুষের সামনে।
১৮. শুভ জন্মদিনঃ কোন শিল্পীর জন্মদিন কোন দিন হবে তার খবর সেই ব্যাক্তির আগে মনে করেন সঙ্গীতাঙ্গন। তাদের জন্মদিন পালনের খবরাখবর সম্পর্কে জানান দেশবাসীর কাছে।
১৯. সম্মাননাঃ কোন শিল্পী, সুরকার ও গীতিকবিকে যখন সম্মাননা দেওয়া হয় তখন তাদের নিয়ে লেখা হয় সঙ্গীতাঙ্গন-এ।
এছাড়াও আছে – আইজিসিসি, ইভেন্টস, এ্যালবাম রিভিউ, ওয়ার্ল্ড ট্যুর, কনসার্ট রিভিউ, গানের কথা, গীতাঞ্জলী, গোল্ডেন মোমেন্টস, ছবি কথা বলে, ছায়াছবির গান, ছায়ানট, টপচার্ট, ঢাকার বাইরে, নিত্য দিনের অনুষ্ঠান, পরামর্শ কেন্দ্র, পাঠকদের সঙ্গীত নিয়ে চিন্তাভাবনা, বিট অফ মিউজিক, বিদায় (যারা চলে গেলেন), বেঙ্গল ফাউন্ডেশন, ভিডিও, মজার ঘটনা, শিল্পীর কথা, সম্পাদকীয়, সাম্প্রতিক প্রতিবেদন, সুরকার, সুরের ভূবন ইত্যাদি।

এভাবেই সঙ্গীতের সাথে কাজ করে যাচ্ছেন দেশের সর্বপ্রথম সঙ্গীত বিষয়ক পত্রিকা সঙ্গীতাঙ্গন। সঙ্গীতাঙ্গনকে বিভিন্ন সময় অনুসরণ করেন বিভিন্ন পত্রিকা ও টিভি চ্যানেল গুলো। একসময় সঙ্গীতজ্ঞদের জন্ম/মৃত্যু নিয়ে লেখা হতো না কোন পত্রিকায়, তবে এখন সঙ্গীতাঙ্গনের পাশাপাশি তারাও এটা নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। সঙ্গীতাঙ্গন আমাদের দেশের সঙ্গীতের জন্য কাজ করেন। তাই সঙ্গীতাঙ্গনের সাথে আছে সবার ভালোবাসা ও দোয়া। দোয়া করবেন সঙ্গীতাঙ্গন যেন আস্তে আস্তে একদিন আরো সফলতার দিক উন্মোচন করতে পারেন।

Related Articles

Leave a reply

Please enter your comment!
Please enter your name here

Stay Connected

18,780FansLike
700SubscribersSubscribe
- Advertisement -

Latest Articles